এসেন্সিয়াল অয়েলের উপকারিতা ও ব্যবহার

এসেন্সিয়াল অয়েলের উপকারিতা

রিয়া সরকারঃ স্পাতে না গিয়েই নিজেকে স্ট্রেসমুক্ত/ চাপমুক্ত রাখতে চান? এসেন্সিয়াল অয়েল আপনাকে ঠিক একিরকম অনুভুতি দিতে পারে ঘরে বসেই।

এসেন্সিয়াল অয়েল সাধারনত এরোমাথেরাপি হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এটি উদ্ভিদের নির্যাস থেকে নেওয়া হয় যা ওষুধের বিকল্প হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এটি আপনাকে মানসিক ও শারীরিক উভয় ভাবেই সতেজ রাখতে সাহায্য করবে।

কিছু এসেন্সিয়াল অয়েলে রয়েছে এনটিসেপটিক, এনটি ব্যকটেরিয়াল এবং এনটি ইনফ্লামাটরি বৈশিষ্ট্য। এটি আমাদের শরীরের সুগন্ধি হিসেবেও ব্যবহার করা যেতে পারে।

অনেক ধরনের এসেন্সিয়াল অয়েল রয়েছে। যেমন- ল্যভেনডার, ইউকেলিপটাস পিপারমেনট, স্যান্ডেলউড, রউজ, ক্যমোমাইল, ইয়াং ইয়াং, টি ট্রি, জেসমিন, লেমন, অলিভ অয়েল। বিভিন্ন ধরনের অয়েল বিভিন্ন কারনে ব্যবহার হয়ে থাকে।

স্ট্রেসমুক্ত রাখতে এসেন্সিয়াল অয়েলের উপকারিতাঃ

গবেষণায় দেখা গেছে প্রায় ৪৩ শতাংশ মানুষ কিছু না কিছু ব্যাবহার করে থাকেন নিজেদের স্ট্রেসমুক্ত রাখতে তার মধ্যে এসেন্সিয়াল অয়েল অন্যতম। এর সুগন্ধি আমাদের উদ্বেগ/ চাপ কমাতে সাহায্য করে।


পিপারমিনট এসেন্সিয়াল অয়েলের উপকারিতা  

নানান কারনে আমাদের মাথা ব্যথা হয়ে থাকে। কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, পিপারমিনট ও ল্যাভেনডার একসাথে মাথায় মালিশ করলে মাথা ব্যথা কমে যায়। এমনকি মাইগ্রেনের ব্যথাও কমে যায়।

ল্যাভেনডার এসেন্সিয়াল অয়েলের উপকারিতা

ল্যাভেনডার এসেন্সিয়াল অয়েল ঘুমের জন্য দারুন কাজ করে। ঘুমানোর সময় আমাদের অনেকেরই মাথায় নানান ধরনের চিন্তা থাকে, অনেক কিছু নিয়ে দুশ্চিন্তা করি আর সেই কারনে আমাদের ঘুম আসতে দেরি হয়। আবার অনেক সময় সারারাত ঘুমাতে পারিনা। এরকম সমস্যাতে ল্যাভেনডার এসেন্সিয়াল অয়েল বা ক্যমোমাইল অয়েল একটু মাথায় লাগিয়ে নিলে কিছুক্ষনের মধ্যেই আপনার ঘুম চলে আসবে। এছাড়াও ল্যাভেনডার অয়েল খুশকি দূর করে ও চুল পরা কমাতে সাহায্য করে।

অলিভ অয়েল

অলিভ অয়েল রুক্ষ ত্বকের জন্য দারুন উপকারি। এতে রয়েছে ভিটামিন এ এবং ই যা আমাদের ত্বকের জন্য খুবই উপকারি। শীতকালে আমাদের সবার ত্বকই রুক্ষ হয়ে যায় এবং নানা সমস্যা দেখা দেয়। অলিভে অয়েল সেই সব সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে থাকে। অলিভে অয়েল চুলের জন্যও খুব উপকারি, এটি চুলে  কনডিশনার হিসেবে কাজ করে থাকে। এছাড়াও অলিভে অয়েল মেইকআপ তোলার জন্যও খুব ভালো।

ইউক্যালিপটাস

এই এসেন্সিয়াল অয়েল শ্বাসযন্ত্রের ইনফেকশন কমানোর সাথে সাথে শরীরের ব্যথা, কেটে যাওয়া বা পুড়ে যাওয়ার মতো সমস্যা সমাধান করে থাকে। এছাড়াও এটি বিভিন্ন কফ সিরাপের মধ্যে ব্যবহার হয়ে থাকে। ইউক্যালিপটাস আমাদের মানসিক স্বাস্থ্যকে সুস্থ রাখে এবং নানা ওষুধের মধ্যেও ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

সিনামেন


সিনামেন অয়েল ম্যাঙ্গানিজ, আইরন এবং ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ। এটি মস্তিস্কের কার্যকারিতা উন্নত করে, রক্তকে বিশুদ্ধ করে এবং হৃদরোগ ও ডায়েবেটিক্সের হাত থেকেও আমাদের মুক্তি পেতে সাহায্য করে। শীতকালে রাতে ঘুমানোর আগে শরীরে লাগিয়ে নিলে আমাদের কফ ও শ্বাস কষ্টের সমস্যা কমে যাবে।

টি ট্রি অয়েল

টি ট্রি অয়েল ত্বকের জন্য খুবই উপকারি। ব্রণের সমস্যা দূর করতে এর ভূমিকা অতুলনীয়। প্রতিদিনের মইশচারাইজারের সাথে ১ থেকে ২ ফোঁটা টি ট্রি অয়েল মিশিয়ে লাগিয়ে নিলে ব্রণের সমস্যা দূর হবে। এছাড়াও ফেইসওয়াশের সাথে টি ট্রি অয়েল মিশিয়ে রোজ মুখ ধুয়ে নিলেও এই সমস্যা দূর হবে।

এসেন্সিয়াল অয়েল এরোমাথেরাপি ছাড়াও আমাদের নানা ভাবে উপকারে আসে। অনেকেই এসেন্সিয়াল অয়েল রুম ফ্রেশনার হিসেবে ব্যবহার করে থাকেন। অনেকে বলে থাকেন এটি ঘরে ব্যবহারের ফলে মশার আনাগনাও কমে যায়।

** তবে অনেক সময় এসেন্সিয়াল অয়েলের গন্ধ নিলে বাচ্চাদের এবং গর্ভবতী মহিলাদের সমস্যা হতে পারে, সেই দিকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে।

তথ্যসূত্র: টইহেলথলাইন

অনলাইনপ্রেস২৪/এরএস/এনজে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *