ঘরোয়া উপায়ে শুষ্ক হাতের যত্ন

ঘরোয়া উপায়ে শুষ্ক হাতের যত্ন

রিয়া সরকারঃ সারাদিনের কাজে আমাদের হাতের ওপর অনেক ঝড়-ঝাপটা যায় তবুও হাতের যত্ন নিতে আমরা অনেকেই অবহেলা করে থাকি।এই হাতের সাহায্যে আমরা টাইপিং থেকে শুরু করে রান্না-বান্না, বাসন ধোওয়া সবই করে থাকি। আর সারাদিনের পর যখন হাতের দিকে নজর পরে তখন তা রুক্ষ, শুষ্ক দেখায়। তাই মুখের যত্নের সাথে সাথে হাতেরও যত্নের খুবই প্রয়োজন।

যেসব কারনে হাত রুক্ষ ও শুষ্ক দেখায়

  • রোদ থেকে সুরক্ষিত থাকে না বলে আমদের হাত রুক্ষ ও শুষ্ক হয়ে যায়। রোদে বেরোনোর সময় আমরা অনেকেই মুখে সানস্ক্রিন লাগালেও হাতে অনেকেই তা ব্যবহার করিনা। তার ফলে সূর্যের রশ্মি আমাদের হাতে সরাসরি পরে এবং হাতের ত্বক রুক্ষ করে দেয়। তাই আমাদের উচিত মুখের সাথে সাথে হাতের ত্বকের ও যথাযথ পরিচর্যা করা।
  • প্রতিদিন ঘরের কাজ যেমন- কাপড় কাঁচা, বাসন ধোওয়া, রান্না করা ইত্যাদি করার ফলে হাত রুক্ষ ও শুষ্ক হয়ে যায়।
  • অতিরিক্ত ক্ষারযুক্ত সাবান/ ডিটারজেনট ব্যবহারের ফলেও হাত রুক্ষ হয়ে যায়।

রুক্ষতা দূর করতে যা করবেন

সুন্দর ও মসৃণ হাত আমরা সবাই চাই কিন্তু অনেক কারনেই হয়তো হাতের পরিচর্যা করা হয় না। কিছু সাধারন নিয়ম মানলেই আমরা আমাদের হাত কে সুন্দর ও মসৃণ রাখতে পারি।

  • সানস্ক্রিন ব্যবহারের সময় অবশ্যই পুরো হাতে এবং আঙ্গুলে লাগাতে হবে।
  • যতটা সম্ভব ক্ষারযুক্ত সাবান ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। যেহেতু ঘর কে পরিষ্কার রাখতে হবে তাই প্রয়োজনে হাতে গ্লাভস পরে কাজ করুন।
  • রাতে ঘুমানোর আগে হাতে মইশচারাইযার ব্যবহার করুন। এতে আপনার হাত কোমল ও মসৃণ হবে।

ঘরোয়া উপায়ে যেভাবে হাতের যত্ন নেবেন

রুক্ষ ত্বক শুধু মাত্র মুখের বা শরীরেরই হয় এমনটা নয়। দৈনন্দিন কাজের মধ্যে আমাদের হাত সব থেকে বেশি ব্যবহার হয়। তাই হাতের ত্বক ও রুক্ষ ও শুষ্ক হতে পারে। সবসময় বাইরের কেনা পণ্য ব্যবহার করা যায় না তাই ঘরোয়া কিছু উপায়ে হাতের যত্ন করা যেতে পারে। চলুন জেনে নিই সেই উপায়গুলো।

নারকেল তেল

নারকেল তেল শুধু চুলের যত্নে সাহায্য করে থাকে টা নয়। এটি আমাদের ত্বকের যত্নেও একি ভাবে সাহায্য করে। ২-৩ টেবিল চামচ নারকেল তেল নিয়ে পুরো হাতে লাগিয়ে ২-৩ ঘণ্টা রেখে দিতে হবে। তাছাড়া নারকেল তেল সারারাত লাগিয়েও রাক্ষতে পারেন। এতে আপনার হাতের ত্বক মসৃণ ও নরম হবে ।

আরও পড়ুন: ত্বকের যত্নে নারকেল তেল

পেট্রোলিয়াম জেলি

রাতে ঘুমানোর আগে পেট্রোলিয়াল জেলি হাতে ভালো করে মেখে নিন। পেট্রোলিয়াম জেলি রুক্ষতা কমাতে দারুন কাজ করে।

মধু

মধুর উপকারিতা সম্পর্কে যতই বলা হোক না কেন টা যেন কম। মধু আমাদের শরীরের জন্য যেমন উপকারি তেমনি ত্বকের যত্নে এর গুনাগুন অতুলনীয়। হাতের যত্নে মধু দারুন কাজ করে থাকে। ২ থেকে ৩ চামচ মধু নিয়ে হাতে ভালো করে লাগিয়ে ৩০ মিনিট রেখে দিন। তারপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিন। মধু আপনার হাতের রুক্ষতা দূর করবে এবং হাতের মইশচার ফিরিয়ে আনবে। আরও পড়ুন: ত্বকের যত্নে মধুর উপকারিতা : ঘরে বসে রূপচর্চা

বাদাম তেল/ আমানড অয়েল

৩ থেকে ৪ টেবিল চামচ বাদাম তেল নিয়ে হাতে ভালো করে মেখে নিতে হবে। আমানড অয়েলে রয়েছে ফ্যটি এসিড যা আপনার ত্বকের মসৃণটা ফিরিয়ে দিতে সাহায্য করে। এশেনসিয়াল সম্পর্কে বিস্তারিত পড়ুন।

দুধ

রুক্ষ ত্বকের জন্য খুব খুবই উপকারী। প্রথমে একটি পাত্রে দুধ হালকা গরম করে নিয়ে তাতে ২০ মিনিটের মতো হাত ভিজিয়ে রাখতে হবে। তারপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে হাত ধুয়ে নিতে হবে। এভাবে প্রতিদিন করলে খুব জলদি আপনি আপনার সমস্যার সমাধান মিলবে। দুধের উপকারিতা এবং পুষ্টিগুন সম্পর্কে বিস্তারিত পড়ুন।

প্রতিদিনের ব্যস্ত সময়ের মধ্যেও কিছুটা সময় বের করে এই ঘরোয়া উপায়গুলোর সাহায্যে আপনি আপনার হাতের যত্ন নিতে পারেন। নিজেকে সুন্দর রাখুন ও সুস্থ থাকুন।

তথ্যসূত্র: এনডিটিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *